২৪ ঘন্টাই খবর

কুলিয়ারচরে রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার করা অসুস্থ নারীর পাশে ওসি একেএম সুলতান মাহামুদ ।

কুলিয়ারচরে রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার করা অসুস্থ নারীর পাশে ওসি একেএম সুলতান মাহামুদ

মুহাম্মদ কাইসার হামিদ, কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

 

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে হাইওয়ে রাস্তার পাশে একটি ঝোপের ভেতর ড্রেন থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা অজ্ঞাত পরিচয়ের নারীকে দেখতে হাসপাতালে যান কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি এ.কে.এম সুলতান মাহামুদ ও স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ।

 

মঙ্গলবার (৬জুলাই) দুপুর ২টার দিকে কুলিয়ারচর থানার ওসি এ.কে.এম সুলতান মাহামুদ ও স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে ওই নারীর খোঁজ খবর নিয়ে নরম খাবার ও কাপড় দিয়ে আসেন। এসময় উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ওমর খসরু, থানার পিএসআই সজীব সাথে ছিলেন।

 

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ওমর খসরু বলেন, ওই মহিলাটি মানসিক ভারসাম্যহীন। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর থেকেই বিশষ ভাবে যত্ন নেওয়া হচ্ছে। এর পরেও ওই নারীর চিকিৎসা সেবা দিতে যা কিছুর প্রয়োজন হয় তাই করা হবে। অপর দিকে ওই নারীর যে কোন প্রয়োজনে পাশে থাকার আশ্বাস দেন কুলিয়ারচর থানার ওসি এ.কে.এম সুলতান মাহামুদ।

 

উল্লেখ্য, গত সোমবার (৫জুলাই) বিকালে ভৈরব-কিশোরগঞ্জ হাইওয়ে সড়কের কুলিয়ারচর উপজেলার লোকমানখাঁরকান্দি গ্রামের সামনে রাস্তার পশ্চিম পাশে ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন একটি ঝোপের ভেতর ড্রেনের মধ্য থেকে ওই অজ্ঞাত পরিচয়ের বৃদ্ধা নারীকে গুরুত্বর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন স্থানীয় দুই নারীসহ সাংবাদিকবৃন্দ।

 

ওই নারীর ঠিকানা জানা না গেলেও চিকিৎসা চলাকালীন সময় ওই নারী চিকন শুরে তার নাম নাছিমা বলেছেন।

 

স্থানীয়রা জানান, ওই নারী তিন দিন যাবৎ ওখানে এভাবেই পরে ছিলো। মহামারি করোনার ভয়ে কেউ ওই মহিলাকে উদ্ধার করতে আসেনি। মানবিক দিক বিবেচনা করে স্থানীয় দুই নারীর সহযোগিতায় উপজেলার বেশ কয়েকজন সাংবাদিক ওই নারীকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.