২৪ ঘন্টাই খবর

শ্রীমঙ্গলে সাম্প্রদায়ীক সম্প্রীতি নষ্ট হওয়া থেকে বড় রকম রক্ষা পেলো

তিমির বনিক, মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ

বিগত কদিন থেকে কিছু দূস্কৃতিকারী সাম্প্রদায়ীক সম্প্রীতি নষ্ট করতে ঝাল বেধেঁ ছিল। খাস জমিতে সনাতনধর্মালম্বীদের বহু বছর পুরনো শশ্মানঘাট নির্মানকে কেন্দ্র করে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ৩নং সদর ইউপি লামাপাড়া নামক এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে ছিল। এই উত্তেজনা নিরসনে শনিবার (৩জুলাই) দুপুর ১ ঘটিকায় দিকে শ্রীমঙ্গল উপজেলার নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলাম, সহকারি কমিশনার ভূমি নেছার উদ্দিন, শ্রীমঙ্গল ৩নং সদর ইউপি চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়সহ উত্তরসুর লামাপাড়ার এলাকাবাসী ও ভান্ডারী গ্রামের এলাকাবাসী শশ্মানঘাটে এলে দুইপক্ষের ৫ জন করে লোক রেখে সবাইকে চলে যেতে বলা হয়।

এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলাম উভয়পক্ষের বক্তব্য শুনেন এবং সার্ভেয়ার দিয়ে জায়গার মাপজোক করেন এবং নিদিষ্ট তারিখ উল্লেখ না করা হলেও, উনার অফিসে বসে বিষয়টি সমাধানের নিমিত্তে সচেষ্ট ভাবে দেখবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন এবং স্ব স্ব পক্ষের লোকজন একথা শুনে চলে যান। তিনি আরও বলেন বর্তমানে যে অবস্থায় শশ্মানঘাটটি আছে সমাধান না হওয়ার মূহুর্ত পর্যন্ত বা আলোচনায় বসার আগে পর্যন্ত সেবস্থানে থাকার নির্দেশ প্রধান করেন। এর মধ্যে কেউ কোন প্রকার উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি না করেন সেজন্যও অনুরোধ করেন।

শশ্মান কমিটির পক্ষে থেকে বক্তব্য তুলে ধরেন আশিষ দেবনাথ (নকুল), এবং ভান্ডারী গ্রামের পক্ষে বক্তব্য তুলে ধরেন আলহাজ্ব মোঃ জাহের মিয়া মাইজভান্ডারী। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী দু’পক্ষের লোকজনকে শান্ত পরিবেশ বজায় রাখার জন্য দায়িত্ব প্রদান করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.