২৪ ঘন্টাই খবর

লালমনিরহাটে গৃহবধূকে হত্যার ঘটনায় চার’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ

লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ 
লালমনিরহাটের সদর উপজেলার গোকুন্ডা ইউনিয়নের রতিপুর ফকিরটারীর গ্রামের এক গৃহবধূকে হত্যার ঘটনায় দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
সোমবার দুপুরে আটকের তথ্য নিশ্চিত করেন লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ শাহা আলম। ঘটনা দিন থেকে পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে পুলিশ বসুনিয়াটারীর সৈয়দ মাষ্টারের ছেলে আলমগীর ও মৃত্যু জেলেকার ২য় স্বামী মন্জু কে জিঞ্জাসাবাদেন জন্য আটক করা হলেও আলমমগীরকে পরবর্তীতে ছেড়ে দেয়া হয়। এরপর রতিপুর মণ্ডলটারির দিনেশ চন্দ্র বর্মন এর ছেলে কাঠমিস্ত্রি বিধান চন্দ্র বর্মন (২৬)ও তার সহযোগী তিস্তা পাঙ্গাটারির ঘুগু চন্দ্র বর্মন এর ছেলে সুকুমার চন্দ্র বর্মন (২১) কে গ্রেপ্তার করা হয় । তারা দুজনই পেশায় কাঠমিস্ত্রি।
উল্লেখ্য গত ২৪ জুন বৃহস্পতিবার বিকেলে সদর উপজেলার গোকুণ্ডা ইউনিয়নের রতিপুর বসুনিয়াটারীর (খামার) নামক এলাকার পাটখেত থেকে মৃত্যু দেলোয়ার হোসেনের মেয়ে জেলেখা বেগম (২৭)এর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে নিহতের মা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা কয়েক জনকে আসামী করে থানায় এজাহার করেন। মামলাটি তদন্তের সময় জেলেখার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারের সিডিআর পর্যালোচনা করে সদর উপজেলার গোকুন্ডা ইউনিয়নের রতিপুর মন্ডলটারি ও তিস্তা পাঙ্গাটারী গ্রামের দুই কাঠমিস্ত্রিকে গ্রেপ্তার করা হয়।বিধান চন্দ্র জেলেখার মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করার পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে বিধান চন্দ্র তার সহকর্মী সুকুমার চন্দ্র বর্মণের সহযোগিতায় তার মৃত্যু দেহ বাড়ি থেকে সরিয়ে একই ইউনিয়নের রতিপুর বসুনিয়াটারির(খামার) নামক এলাকায় একটি পাটখেতে মরদেহটি ফেলে রাখেন। সদর থানা অফিসার ইনচার্জ বিষয় টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘আসামি বিধান চন্দ্র বর্মণ (২৬) ও সুকুমার চন্দ্র বর্মণ (২১)দোষ স্বীকার করায় আদালত ২৭ জুন ১৬৪ ধারায় তাদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.