২৪ ঘন্টাই খবর

মাদারীপুর পৌরসভায় প্রাক-বাজেটের মুক্ত আলোচনা। 

মাদারীপুর পৌরসভায় প্রাক-বাজেটের মুক্ত আলোচনা।

রাকিব হাসান, মাদারীপুর।

 

“জাগ্রত বিবেক, দুর্জয় তারুণ্য, দুর্নীতি রুখবেই” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মাদারীপুর পৌরসভায় প্রাক-বাজেটের মুক্ত আলোচনা ও গণশুনানী নাগরিক প্রত্যাশাকে প্রাধান্য দিয়ে বাজেট প্রনয়ণের অঙ্গীকার মাদাীরপুরে জনগণের মতামত ও প্রত্যাশা বিবেচনা করে পৌরসভার বাজেট প্রণয়ন করা হবে। নাগরিক সম্পৃক্ততার মাধ্যমে এ পৌরসভাকে একটি আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তোলাই তাদের মূল লক্ষ্য। মাদারীপুর পৌরসভার ও ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) এর অনুপ্রেরণায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), মাদারীপুরে যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত “করোনাকালীন সময়ে কেমন বাজেট চাই’ শীর্ষক ‘প্রাক-বাজেট মুক্ত আলোচনা ও গণশুনানীতে বক্তারা এ কথা বলেন। আজ ২৭জুন( রবিবার) অনলাইন প্লাটফরমে আয়োজিত এ গণশুনানীতে সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, আইনজীবী, শিক্ষাবিদ, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, এনজিও কর্মী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, সুশিল সমাজের প্রতিনিধি, নারী নেত্রী, স্বেচ্ছাসেবী

সংগঠনের প্রতিনিধি, শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেনি পেশার ৮৯ জন প্রতিনিধি অনলাইন আলোচনা সভায় যুম আইডির এর মাধ্যমে অংশগ্রহণ করেন।উক্ত অনুষ্ঠানে মাদারীপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ খালিদ হোসেন ইয়াদ ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের খসড়া বাজেট উপস্থাপন করেন এবং নাগরিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। লক্ষ্য, উদ্দেশ্য বাজেট প্রণয়নে নাগরিক সম্পৃক্ততার গুরুত্ব তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন সনাক সভাপতি জনাব খান মোঃ শহীদ, স্থানীয় সরকার বিভাগ মাদাীরপুরের উপ-পরিচালক জনাব মোঃ আজহারুল ইসলাম, টিআইবি’র কোঅর্ডিনেটর মোঃ আতিকুর রহমান।

সনাক সদস্য শাহাদাত হোসেন লিটন’র সঞ্চালনায় সরাসরি মুক্ত আলোচনায় বিভিন্ন

শ্রেণি পেশার ১০ জন প্রতিনিধি এবং অলনাইনে ০৪ জন প্রতিনিধি মতামত প্রদান

করেন। অনুষ্ঠানে উপস্হিত থেকে বক্তব্য রাখেন, পৌরসভার কাউন্সিলর সাইয়েদা সালমা, সাইদুল বাশার, কাওসার মাহামুদ ও মোঃ সিদ্দিকুর রহমান তালুকদার প্রমূখ। মুক্ত আলোচনায় নাগরিকগণ মশক নিধন, ড্রেণ নির্মাণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা,

লোডশেডিং, মাদক নিয়ন্ত্রন, করোনাকালীন বিশেষ বরাদ্দ এবং পিছিয়ে পরা জনগোষ্ঠী ও

নারীদের উন্নয়ন সহ বিভিন্ন বিষয়ে মতামত, প্রশ্ন, সুপারিশ তুলে ধরেন।আলোচনায় বক্তরা আরো বলেন, আজকের এই আয়োজনটি নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবী রাখে যা

বাংলাদেশের মধ্য অন্যতম। এটি জন অংশগ্রহনমূলক ও নাগরিক বান্ধব একটি অনুষ্ঠান। দরিদ্র ও মেধাবি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান ও শিক্ষা সহায়তা অব্যাহত রাখা, মাদক নিরসনের অঙ্গিকার, বরাদ্দ বাজেট সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করা, পুরাতন বাজারে হকারদের জন্য জায়গা নির্ধারিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)

মাদারীপুর জাগ্রত বিবেক, দুর্জয় তারুণ্য, দুর্নীতি রুখবেই করা, স্ট্যান্ডগুলোতে যাত্রী ছাউনি স্থাপন, মাদারীপুর সদর হাসপাতাল ও মাতৃমঙ্গলে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও সর্বপুরি চুড়ান্ত বাজেটের সঠিক বাস্তবায়নের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।সামগ্রিক আলোচনার প্রেক্ষিতে পৌর মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদ বলেন, মাদারীপুর পৌরসভা জনগনের কল্যানের অভিপ্রায় নিয়ে কাজ করে এবং জনগনকে সম্পৃক্ততা করে এগিয়ে

যেতে অঙ্গিকারাবদ্ধ। এই অঙ্গীকার থেকেই যেকেউ চাইলে ডিজিটাল মাধ্যমে পৌরসভায়

তার মতামত, পরামর্শ ও প্রশ্ন জানাতে পারেন এই ব্যাবস্থা নেয়া হয়েছে। পরিশেষে পৌর মেয়র সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে করোনাকালীন সময়ে কেমন বাজেট প্রয়োজন সে বিষয়ে বাজেটে নাগরিকদের আকাঙ্খার প্রতিফলন ও বাস্তবায়নের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। মেয়র

পৌরসভার অঙ্গীকারের জায়গা থেকে আগামী ০৭ জুলাই, ২০২১ তারিখে চূড়ান্ত বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে আবারো অনলাইনে সকলকে যুক্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.