২৪ ঘন্টাই খবর

একটি বসতবাড়িকে নদী গর্ভে বিলীন হতে দেয়া যাবে না -মন্ত্রী এনামুল হক শামীম ।

একটি বসতবাড়িকে নদী গর্ভে বিলীন হতে দেয়া যাবে না -মন্ত্রী এনামুল হক শামীম

 

মোঃ সালমান হোসেন সাগর, শরীয়তপুর জেলা প্রতিনিধি।

 

শরীয়তপুর জেলার, গোসাইরহাট উপজেলায় আজ ২২শে জুন, রোজ: সোমবার মেঘনা ও জয়ন্তী নদী পাড় ঘেঁষা গোসাইরহাট উপজেলা নদীমাতৃক প্রত্যন্ত চর অঞ্চলের ১৮ কিলোমিটার নদী পথ ভ্রমণে ৪টি ইউনিয়নে স্পীড বোট যোগে বিভিন্ন গ্রামে নদী ভাঙন কবলিত সব হারা অসহায় যাদের ইতিমধ্যে ঘর বাড়ি জমি নদীর গর্ভে বিলিন হয়েছে এবং অনেকের ভাঙার শঙ্কায় সেইসব অবহেলিত নদীর পাড়ের বসবাসরত ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য টেকসই বাধ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ।

 

এনামুল হক শামীম শরীয়তপুর (২) উপমন্ত্রী পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় বাংলাদেশ সরকার। আলহাজ্ব নাহিম রাজ্জাক এমপি শরীয়তপুর (৩) সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের এক্সচেঞ্জ,

 

গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান ঢালী।মোঃ আলমগীর হোসাইন উপজেলা নির্বাহী অফিসার। শাজাহান সিকদার সভাপতি গোসাইরহাট উপজেলা আওয়ামীলীগ। শেখ মোঃ আবুল খায়ের ভাইস চেয়ারম্যান গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদ। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মোঃ শাহজাহান।

 

এসময় মন্ত্রী মহাদয়ের শুভ আগমন উপলক্ষে কোদালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান সরদার তার নিজ এলাকায় নেত্রীবৃন্দ সহ ফুল দিয়ে বরন করেন। এরপরে স্পীড বোট যোগে কোদালপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় নদী ভাঙন কবলিত তার মধ্যে কোদালপুর বালুর চর বাজার, কোদালপুর লঞ্চঘাট, নেছার আলি মোল্লা পাড়া, খালাসি পাড়া নদীর পাড় ঠান্ডা বাজার নদীর পাড়। আলাওলপুর আব্দুর রাজ্জাক বেইলী সেতু এবং একই সাথে কুচাই পট্টি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান স্বপন বেপারী তার কয়েকটি গ্রাম ভাঙন পরিদর্শন করান ৬নং ওয়ার্ড।গোসাইরহাট ইউনিয়নের সাইখা বাজার নদীর পাড়, মালপাড়া নদীর পাড়,ও হাটুরিয়া নদীর পাড়, গোসাইরহাট পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড নদীর পাড় সহ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমানের বাড়ির নদীর পাড়।

 

তিনি তার সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে এই সমস্ত নদী ভাঙ্গন রোধে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ৬৩৫ কোটি টাকার একটি স্থায়ি টেকসই বেরিবাধ নির্মাণের জন্য প্যাকেজ উপহার দেওয়ার কথা বলেন যেখানে কিনা সিসি ব্লক ডাম্পিং করার মাধ্যমে স্থায়ী একটি টেকসই বেড়িবাঁধ করা হবে যাতে আর কোনো ঘরবাড়ি জমিজমা নদীর ভাঙ্গন কবলে না পড়ে সেজন্য তিনি এই পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে।

 

ভাঙন পরিদর্শন কালে বিশাল জন সমুদ্রে পরিনত হয় তার উপস্থিতে । এই নদী পথে প্রত্যেকটি ভাঙ্গনের স্থানে সীমিত আকারে পথসভায় বক্তিতাকালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘ আয়ু কামনা করে দোয়া প্রার্থনা করেন এবং একই সাথে প্রয়াত নেতা সাবেক সফল পানিসম্পদমন্ত্রী মরহুম আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাকের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া চেয়েছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.