২৪ ঘন্টাই খবর

আশুলিয়ার বিএনপি থেকে-ঢাকা জেলার কৃষকলীগ নেতা আলেক!

সাঈম সরকারঃ

সাভার এবং আশুলিয়ায় এর আগে বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগ দিয়ে পদপদবি বাগিয়ে নিয়েছেন অনেকেই। এমনকি আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতাদের হটিয়ে জনপ্রতিনিধিও  হয়েছেন একাধিক ব্যক্তিও ।এ নিয়ে পাল্টাপাল্টি তর্ক বিতর্ক অভিযোগ অনুযোগের  শেষ নেই ।ওপর মহলে নালিশ করেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি! তারই ধারাবাহিকতায় ফের বিতর্কের সৃষ্টি করলেন বাংলাদেশ কৃষকলীগ। আগে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান করিয়ে তারপর পদপদবি দিলেও এবার যোগদান পর্ব ছাড়াই আশুলিয়ার এক ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকে বানিয়ে দিয়েছেন কৃষকলীগের ঢাকা জেলা নেতা ।

আঃলীগের নীতি নির্ধারকদের সিদ্ধান্তকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কতিপয় নেতাদের স্বল্প স্বার্থে দলের পোড়খাওয়া নেতাকর্মী বাদ দিয়ে স্বার্থন্বেষী একটি মহল জামাত-বিএনপির লোকজনকে পদপদবি দিচ্ছেন বলে মনে করেন তৃণমূল নেতাকর্মীরা ।এতে করে অনুপ্রবেশকারীদের হিংসাত্বক চাপে চেপ্টা হচ্ছেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের প্রকৃত সৈনিকরা। জানা যায়, গত ২২মে মহসিন করিমকে আহ্বায়ক এবং মাষ্টার দেলোয়ার হোসেনসহ ৪জনকে যুগ্ম-আহ্বায়ক করে ২৫ সদস্যের  বাংলাদেশ কৃষকলীগ ঢাকা উত্তর জেলা শাখার সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির অনুমদন দেন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কৃষিবিদ সমির চন্দ ও সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি ।আর এই কমিটিতে  সদস্য হন বিএনপি নেতা আলেক।

সূত্রে জানায়,ঢাকা জেলা আশুলিয়া থানা ভাদাইল পবনারটেক এলাকার মৃত জাফর আলির ছেলে   আলেকুজ্জামান আলেক দীর্ঘদন যাবৎ বিএনপির রাজনীতি করে আসছিল ! সরকার পতনের বিভিন্ন ইস্যুতে সক্রিয় থাকায় তার বিরুদ্ধে মামলাও রয়েছে কয়েকটি । ধামসোনা ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদকের দায়ীত্বরত থাকা অবস্থায় দীর্ঘদিনের  লালিত জিয়ার আদর্শকে  হঠাৎ করেই বিসর্জন দিয়ে নিজের ভোল পাল্টে কয়েকটি মামলার বোঝা মাথায় নিয়েই গত মাসে (২২মে) বাংলাদেশ কৃষকলীগ ঢাকা উত্তর জেলা শাখার সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটিতে ১৮ নাম্বার সদস্য হয়েছেন তিনি । আর এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তৃণমূল পর্যায়ের আওয়ামীলীগের বিভিন্ন অঙ্গসংঠনের নেতাকর্মীগণ।

বাংলাদেশ কৃষকলীগ ঢাকা উত্তর জেলা শাখার সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক মহসিন করিম সংবাদকর্মীদের বলেন,কেন্দ্রে নামের তালিকা পাঠিয়েছিলাম ।সেখানে আলেকুজ্জামান আলেক কেন্দ্রিয় নেতাদের তদবিরে সদস্য পদ পেয়েছেন। ধামসোনা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হাজী আঃ গফুর মিয়া বলেন, আলেক আমার কমিটিতে ছিল ,এখন শুনছি সে কৃষকলীগের জেলা কমিটির নেতা হয়েছে। আলেকুজ্জামান আলেক-কে জানার জন্য তার  মুঠো ফোনে সংবাদকর্মীগণ একাধীকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিব করেননি। একটি নির্ভর সূত্র জানান, আলেকুজ্জামান আলেক কৃষকলীগের জেলা আহ্বায়ক কমিটির সদস্য হয়ে সম্প্রতি সে  বিএনপি নেতা কর্মীদের নিয়ে  আনন্দ ভ্রমনে কক্সবাজার গিয়েছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.