২৪ ঘন্টাই খবর

নওগাঁ রাণীনগরে দলবল নিয়ে নিজ জামাই-মেয়ের বাড়ীতে মারপিট ও লুট-পাটের অভিযোগ

হাবিবঃ
নিজ পিতা মেয়ে জামাইয়ের বাড়ীতে লোক-জন নিয়ে জামাই, মেয়ে, নাতি ও স্ত্রীকে মার-পিট করে বাড়ী থেকে বের করে দিয়ে নগদ টাকাও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যাওয়ায় রানীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে জামাই জুয়েল। ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁ জেলার রাণীনগর উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডে হরিষপুর গ্রামে।
জানা যায়, উক্ত গ্রামের রিয়াজ সর্দারের ছেলে বাবু স্ত্রীও এক ছেলে, এক মেয়ে রেখে প্রায় ২৫ বছর আগে ঢাকায় চলে যায়। প্রায় ২৫ বছর স্ত্রী ছেলে,মেয়ের খোঁজ খবর রাখে না বা কোন খরচ-পাতিও দেয় নাই। এরপর সে হঠাৎ করে বাড়ীতে এসে তার স্ত্রীকে ভয়ভীতি ও বিভিন্ন ধরণের হুমকি দিয়ে ১০/২০ হাজার করে টাকা নিয়ে যায়। এক সময় বাবুর স্ত্রী পারুল বিবি জানিতে পারে, বাবু তার বিনা অনুমতিতে ঢাকায় আরো ২টা বিয়ে করেছে এবং সন্তানও রয়েছে।  এরপর থেকে ভয়ভীতি দেখালেও বাবুকে টাকা পয়সা আর দেয় না। গত ১৩/০৬/২১ ইং,তারিখে প্রবাসী মেয়ে জামাই মোঃ জুয়েল বাড়ীতে রাজমিস্ত্রি লাগিয়ে বাড়ীর কাজ করছিলো,বৈকাল আনুমানিক ৪টার সময় মোঃ বাবু হোসেন (৫৫) মোঃ ছহির উদ্দীন (৬০), মোঃ শহিদুল (৫২)  মোছাঃ জাহানারা (৪০),মোছাঃ শেফালী (৫৫), মোমিন (৩০),,,,,সহ প্রায় ৫০ জন এনএম সমিতির লোকজন দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে জুয়েলের বাড়ীতে হামলা চালায় এবং জুয়েল সহ শাশুড়ী, স্ত্রী ও শিশু সন্তান সহ সকলকে মারপিট করে বাড়ী থেকে বের করে দিয়ে, ২ লক্ষ ১০ হাজার টাকা ও ৩ ভরি সর্ব মোট স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে বাড়ীতে তালাবদ্ধ করে রেখে যায়। পরবর্তীতে তাহারা রাণীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়ে রাণীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ করিলে, এস আই মিজান স্থানীয় ইউ’পি সদস্য সাহেব আলী (মেম্বার)কে বিষয়টি দেখিতে বলিলে, মেম্বার বাবুর কাছ থেকে চাবি নিয়ে ২ জন প্রতিনিধিকে তাদের বাড়ীতে পাঠায় এবং  দেখিতে পারে,আলমারী সোকেসের তালা ভাঙ্গা ও নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার গুলো নেই। ইউ’পি সদস্য সাহেব আলীও তা স্বীকার করে জানায়, তার পা ক্ষত থাকায়, দু,জন প্রতিনিধি পাঠিয়ে ছিলো এবং তারা আলমারী,সোকেস,জানালা ভাঙ্গা দেখেছে।
এ বিষয়ে বিবাদী বাবুর কাছে জানতে চাইলে,  সে বিনা অনুমতিতে বিয়ের বিষয়টি এরিয়ে গিয়ে মোবাইল ফোনে বলে, তাদেরকে বাড়ী থেকে বের করে দেওয়ার পিছনে অনেক কারণ আছে যাহা ফোনে বলা যাবে না। নগদ টাকাও স্বর্ণালংকার নেওয়ার কথাও সে অস্বীকার করে। মোঃ ছহির উদ্দিন জানান, ঘটনার শোনার পরে,সে সেখানে গিয়েছিলো,কিন্তু কাহারো পক্ষ হয়ে যায় নাই।
ভুক্তভুগী জুয়েল হোসেন,তার স্ত্রী ও তার শাশুড়ী জানায়, বর্তমানে এই যুগে এমন দিনের বেলায় বর্বরোচিত নির্যাতন করে নিজ বাড়ী থেকে বের করে দেওয়া,সারা রাত্রী তারা শিশু সন্তানদের নিয়ে রাস্তায় কাটিয়েছে ও নগদ অর্থ-স্বর্ণালংকার ফেরত দিতে চেয়েও,ফেরত না দিলে আইনের আশ্রয় নেবে বলে জানায়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.