২৪ ঘন্টাই খবর

শ্রীনগরে ষোলঘরে রাস্তার বেহাল দশা জনদুর্ভোগ চরমে।

শ্রীনগরে ষোলঘরে রাস্তার বেহাল দশা জনদুর্ভোগ চরমে

শ্রীনগরে ষোলঘরে রাস্তার বেহাল দশা জনদুর্ভোগ চরমে
মোঃ আনোয়ার হোসেনঃ শ্রীনগরে ষোলঘরে রাস্তার বেহাল দশা জনদুর্ভোগ চরমে। উপজেলার ষোলঘর ইউনিয়নের পশ্চিম কেয়টখালী ইসলামী মাদ্রাসা রাস্তায় জনচলাচল একেবারেই অনপোযোগী হয়ে পড়েছে। বৃষ্টিতে রাস্তা কর্দমাক্ত হয়ে পড়ায় ঐ এলাকার কোন লোকজনই এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে পারছে না।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ষোলঘর ইউনিয়নের পশ্চিম কেয়টখালী মাদ্রাসা যাওয়ার প্রায় ২ কিঃ মিঃ রাস্তাটি মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে।
প্রতিদিন এ রাস্তা দিয়ে প্রায় ১০ হাজার লোক যাতায়াত করে। এ গ্রামে একটি মাদ্রাসা, একটি প্রাইমারী স্কুল ও ৫ টি জামে মসজিদ রয়েছে। রাস্তার এমন বেহাল অবস্থা হওয়ায় কেউ চলাচল করতে পারছে না। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় ইউনিয়নের বেশিরভাগ রাস্তার অবস্থা বেহাল। এতে চলাচলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন এলাকার জনসাধারণ।
মক্তব, মাদ্রাসা ও স্কুল পড়ুয়া কমল মতি শিশু সহ শিক্ষকদের বিদ্যালয়, মাদ্রাসা ও মক্তবে যেতে পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। এলাকায় বিয়ে সাধিতে আমন্ত্রীত অতিথিদের আসতে সীমাহীন কষ্ট আদিম যুগকেও হার মানায়।

স্থানীয় মুদি দোকানদার আঃ বারেক মুন্সী জানায়, এ রাস্তা দিয়ে চলাচলের আমাদের একেবারেই সম্ভব হচ্ছে না অথচ কিছু দুরেই ঢাকা- মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে।
এব্যাপারে ষোলঘর ইউপি সদস্য সুলতানের কাছে জানতে চাওয়ার জন্য ফোন দিলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

মোঃ আনোয়ার হোসেনঃ শ্রীনগরে ষোলঘরে রাস্তার বেহাল দশা জনদুর্ভোগ চরমে। উপজেলার ষোলঘর ইউনিয়নের পশ্চিম কেয়টখালী ইসলামী মাদ্রাসা রাস্তায় জনচলাচল একেবারেই অনপোযোগী হয়ে পড়েছে। বৃষ্টিতে রাস্তা কর্দমাক্ত হয়ে পড়ায় ঐ এলাকার কোন লোকজনই এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে পারছে না।

 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ষোলঘর ইউনিয়নের পশ্চিম কেয়টখালী মাদ্রাসা যাওয়ার প্রায় ২ কিঃ মিঃ রাস্তাটি মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে।

প্রতিদিন এ রাস্তা দিয়ে প্রায় ১০ হাজার লোক যাতায়াত করে। এ গ্রামে একটি মাদ্রাসা, একটি প্রাইমারী স্কুল ও ৫ টি জামে মসজিদ রয়েছে। রাস্তার এমন বেহাল অবস্থা হওয়ায় কেউ চলাচল করতে পারছে না। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় ইউনিয়নের বেশিরভাগ রাস্তার অবস্থা বেহাল। এতে চলাচলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন এলাকার জনসাধারণ।

মক্তব, মাদ্রাসা ও স্কুল পড়ুয়া কমল মতি শিশু সহ শিক্ষকদের বিদ্যালয়, মাদ্রাসা ও মক্তবে যেতে পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। এলাকায় বিয়ে সাধিতে আমন্ত্রীত অতিথিদের আসতে সীমাহীন কষ্ট আদিম যুগকেও হার মানায়।

 

স্থানীয় মুদি দোকানদার আঃ বারেক মুন্সী জানায়, এ রাস্তা দিয়ে চলাচলের আমাদের একেবারেই সম্ভব হচ্ছে না অথচ কিছু দুরেই ঢাকা- মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে।

এব্যাপারে ষোলঘর ইউপি সদস্য সুলতানের কাছে জানতে চাওয়ার জন্য ফোন দিলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.