২৪ ঘন্টাই খবর

সংক্রমণ রোধ করা না গেলে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া কঠিন হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশে আবারও শুরু হতে যাচ্ছে করোনার টিকা প্রয়োগ। আগামী ১৯ জুন থেকে এ টিকার প্রয়োগ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এই টিকা প্রয়োগে নিবন্ধিতরা অগ্রাধিকার পাবে বলেও জানান তিনি।

সোমবার (১৪ জুন) বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনসের (বিসিপিএস) অডিটিরিয়ামে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর মা ফৌজিয়া মালেকের মৃত্যুতে বিশেষ দোয়া মাহফিলে তিনি এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘টিকা প্রয়োগের ক্ষেত্রে যারা আগে নিবন্ধন করে রেখেছেন তারা অগ্রাধিকার পাবেন।’

তিনি আরও বলেন, করোনার সংক্রমণ যদি রোধ করা না যায় পরিস্থিতি সামাল দেওয়া কঠিন হবে। এজন্য সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এদিকে সোমবার সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম জানিয়েছেন, আগামী সপ্তাহ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজারের ও চীনের সিনোফার্মের টিকা দেওয়া শুরু হবে। তবে কত তারিখ থেকে দেওয়া শুরু হবে তা নিশ্চিত করেননি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র বলছে, ইতোমধ্যে নিবন্ধন করেছেন এমন ব্যক্তিরাই ফাইজার ও সিনোফার্মের টিকা পাবেন। খুব শিগগির নিবন্ধন করা ব্যক্তিদের কাছে মোবাইল ফোনে বার্তার মাধ্যমে তারিখ জানানো হবে। এর আগে রোববার (১৩ জুন) বিকালে দেশে এসেছে চীন থেকে উপহার হিসেবে পাওয়া ৬ লাখ ডোজ সিনোভ্যাকের টিকা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, অগ্রাধিকারের তালিকায় মেডিকেল শিক্ষার্থী, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী, মেগাপ্রকল্পের কর্মীসহ আরও অনেকে। তবে নির্দিষ্ট করে কারও কথা বলা হচ্ছে না এখনও। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এমএনসিঅ্যান্ডএএইচ অপারেশনাল প্ল্যানের লাইন ডিরেক্টর ডা. মো. শামসুল হক সংবাদমাধ্যমকে জানান, মেডিকেল শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি এই টিকায় অগ্রাধিকার পাবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল, রূপপুরের মতো মেগা প্রকল্পে কর্মরতরা।

ডা. মো. শামসুল হক আরও বলেন, এই মুহূর্তে মেডিকেল, নার্সিং, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আছেন। কিন্তু এরা সংখ্যায় এত বেশি না। এ ছাড়া বিভিন্ন এক্সপোর্ট জোন, বিশেষ প্রকল্পে যারা কাজ করছেন তারাও আছেন অগ্রাধিকার তালিকায়। অগ্রাধিকার তালিকায় আগে ছিলেন, কিন্তু বাদ পড়েছেন, এমন জনগোষ্ঠীকেও এই টিকা দেওয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.