২৪ ঘন্টাই খবর

কুলিয়ারচরে সাড়ে ৫ বছরের শিশু যৌন নিপীড়নে অভিযুক্ত আশরাফুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ  ।

কুলিয়ারচরে সাড়ে ৫ বছরের শিশু যৌন নিপীড়নে অভিযুক্ত আশরাফুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

মুহাম্মদ কাইসার হামিদ, কুলিয়ারচর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

 

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের নাপিতেরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিশু শ্রেণির ছাত্রী (সাড়ে ৫ বছর) যৌন নিপীড়নে অভিযুক্ত লম্পট আশরাফুল ইসলাম (১৯) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

যৌন নিপীড়নের ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার (৩জুন) বিকাল সোয়া ৪টার দিকে কুলিয়ারচর থানায় মামলা রুজু হওয়ার পর থেকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার এসআই কাজী রাকিব দেড় ঘন্টা অভিযান চালিয়ে সুকৌশলে অভিযুক্ত লম্পট আশরাফুল ইসলামকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

 

জানা যায়, গত বুধবার (২জুন) বিকাল ৪ টার দিকে উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের নাপিতেরচর গ্রামের শহীদুল্লাহর ছেলে আশরাফুল ইসলাম (১৯) কর্তৃক যৌন নিপীড়নের শিকার হয় ওই শিশুটি।

 

এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে লম্পট আশরাফুলের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার (৩জুন) বিকাল ৪টার দিকে কুলিয়ারচর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করলে ৪টা ১০মিনিটের সময় মামলাটি রুজু হয়। এর প্রায় দেড় ঘন্টা পর মামলায় অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

 

শিশুর বাবা (৩৭) এ প্রতিনিধিকে জানান, গত বুধবার (২জুন) বিকাল ৪ টার দিকে তার সাড়ে ৫ বছর বয়সের শিশু কন্যাকে ঘুড়ি দেখানোর নাম করে পার্শ্ববর্তী বাড়ির শহীদুল্লাহর ছেলে লম্পট আশরাফুল ইসলাম (১৯) তার ঘরে ডেকে নিয়ে ওই শিশুটির পড়নের হাফপ্যান্ট খুলে শিশুর যৌনাঙ্গে আঙ্গুল ঢুকিয়ে যৌন নিপীড়ন করে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় শিশুটির ডাক চিৎকার করতে থাকলে শিশুটিকে হাফপ্যান্ট পড়িয়ে তাকে ছেড়ে দেয়। এঘটনার পর শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে মা’র কাছে গিয়ে ঘটনাটি খুলে বলে। এর আগেও লম্পট আশরাফুল ওই শিশুটিরকে যৌন নিপীড়ন করেছিলো বলে জানান শিশুটির বাবা। বিষয়টি স্থানীয় ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহ আলম সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে তারা শিশুটির বাবাকে থানায় গিয়ে অভিযোগ করতে পরামর্শ দেন।

 

শিশুটি বলে, আশরাফুল তাকে ঘুড়ি দেখানোর কথা বলে ঘরে ডেকে নিয়ে তার হাফপ্যান্ট খুলে প্রস্রাবের জায়গায় আঙ্গুল ঢুকিয়ে নাড়া দেয় এবং এ কথা কাউকে না বলার জন্য হুমকি দিয়ে বলে যদি এ কথা কাউকে বলে তাহলে তাকে মারধোর করবে।

 

এব্যাপারে ফরিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহ্ আলম বলেন, বিষয়টি নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে শিশুটির বাবা তার নিকট গেলে তিনি তাকে থানায় অভিযোগ করতে পরামর্শ দেন।

 

এব্যাপারে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি এ.কে.এম সুলতান মাহমুদ বলেন, এ ঘটনায় কুলিয়ারচর থানায় মামলা রুজু হওয়ার দেড় ঘন্টা পর অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 

এব্যাপারে থানায় অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম শিশুটিকে যৌন নিপীড়নের ঘটনা অস্বীকার করে বল, সে এ ঘটনার বিষয়ে কিছুই জানেনা। এটা একটি সাজানো ঘটনা।

 

শিশুটির মা বলেন, অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম গ্রেফতার হওয়ার পর থেকে তার পরিবারের লোকজন তাদের বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে। তাদের ভয়ে এখন তারা নিরপত্তাহীনতায় ভূগছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.