২৪ ঘন্টাই খবর

জনসাধারণের দূর্ভোগের লাগবে নিজস্ব অর্থায়নে ঐতিহ্যবাহী কেন্দুয়া কালিবাড়ী বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থা পরিষ্কার 

স্টাফ রিপোর্টার :
জামালপুর সদর উপজেলা ঐতিহ্যবাহী কেন্দুয়া কালিবাড়ী বাজার দীর্ঘদিন ধরে ড্রেনেজ ব্যবস্থা পরিষ্কার না করাতে কেন্দুয়া বাজার ব্যবসায়ী এবং আশেপাশে দূরদূরান্ত থেকে আগত জনসাধারণের দূর্ভোগের শেষ নেই।
স্থানীয় প্রশাসন,উপজেলা প্রশাসন সব জায়গায় আবেদন অনুরোধ করেও কোন সমাধান দেয়নাই।শুধু এই বছর না আগামী বছর,জুন ডিসেম্বর করেই কাটিয়ে দিল বছরের পর বছর।অথচ বাজার ইজারা নেওয়ার সময় সরকারী ভাবে ১৫/২০ লাখ টাকার প্রতি বছর ৫% ভ্যাট স্থানীয় প্রশাসন বাবদ হিসেবে কেটে নেয় বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থা পরিস্কার ও মেরামতের জন্য। গত ৫/৭ বছরের টাকাগুলো গেল কই বা কোথায় যাচ্ছে?
গত পাঁচ/সাত বছরের মধ্যে গত বছর এলজিআরডি কর্তৃক শুধু রাস্তার দুই পাশের ড্রেন গুলো পরিষ্কার করে কোনরকম মেইন রোড়ের দূর্ভোগ কিছুটা কমেছিল।কিন্তু বাজারের ভিতর আরো যেইসব ড্রেন রয়েছে সেইসব বন্ধ ছিল এবং সেগুলোর চাপ ও একবছরের ব্যবহারের ফলে একটু বৃষ্টিতেই বাজারে হাঁটুজল এবং দুর্গন্ধের শেষ নেই।দেখার মত কেউ নাই।
শহরের প্রায় প্রতি বিদ্যুতের পিলারে রাতের বেলায় আলোকিত রাখতে ও এরিয়ায় চুরি ডাকাত এড়াতে  এবং  মানুষের চলাচলের নিরাপত্তার স্বার্থে  বিদ্যুৎ সংযোগ লাইট এবং বিভিন্ন ইউনিয়নের বাজার এরিয়ায় থাকলেও আমাদের ঐতিহ্যবাহী কেন্দুয়া বাজারে নেই। ড্রেনের অনেক জায়গায় নেই কোন পাট্টাও, ভেঙ্গে গেছে কিছু উদাউ হয়ে গেছে।ফলে বিদ্যু চলে গেলে বা বৃষ্টিতে পানি আটকিলে মানুষ রাস্তা মনে করে হেটে চললে ড্রেনের মধ্যে পড়ে গিয়ে ব্যাথা সহ ভিজে লোকলজ্জা এড়িয়ে বাসায় ফিরতে হয়।গতবছর অনেকে বাজারের মধ্যে শিংমাছ ছেড়ে দিয়েছিল।
অবশেষে সর্বমহলে হতাশ হয়ে আজ রাতে ২৯/০৫/২০২১ কেন্দুয়া বাজারের ব্যবসায়ী ও ইজারাদার,ফকরুল আলম পিন্টু,খালেদুজ্জামান প্রদীপ,আনোয়ার হোসেন মানু,ফখরুল আলম লিটু,মাসুদ রানা, সাইফুল_ইসলাম_খান_সোহেল এদের উদ্দোগে ও আরো অনেকের নিজেদের অর্থায়নে এবং সহযোগিতায় তিন বছর আগে এবং দ্বিতীয়বারের মত এইবারো বাজার ড্রেনেজ পরিষ্কার করা হলো।

Leave A Reply

Your email address will not be published.