২৪ ঘন্টাই খবর

“স্বজন রাজারকুল” এর আত্মপ্রকাশ

রাহিমা আক্তার মুক্তা :

কক্সবাজার জেলার অন্তর্গত রামু থানার রাজারকুল ইউনিয়নে “স্বজন” নামে এক সংগঠনের আত্মপ্রকাশ করেছে। রাজারকুলে বিভিন্ন সামাজিক সংঘঠন থাকলেও স্বজন তাদের ভিন্ন ও সমাজ উপযোগী মনে করেন স্বজনের আহবায়করা। গত ১৮ মে রোজ মঙ্গলবার তিনঘন্টা অনলাইন মিটিংয়ে পর সবার মতামতের ভিত্তিতে ১৩ জনের একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

সংঘঠনের কার্যক্রম ও পূর্নাঙ্গ কমিটি তৈরি করার জন্য রফিকুল ইসলামকে আহবায়ক করেন। কমিটিতে অন্যন্য যুগ্ম আহবায়কগন হলেন যথাক্রমে নোমান শিবলী, সালেহ উল্লাহ আনসারি, রাশেদুল হক, মোবারক হোসেন, আব্দুল্লাহ আল মাসুম, জহিরুল হক, বোরহান উদ্দিন, সালামত উল্লাহ, জসিম উদ্দিন, এহেসান উল্লাহ, আব্দস সামাদ ও জহির উদ্দিন। আব্দুল্লাহ আল মাসুম ও জসিম উদ্দিন সংঘঠনের পর্যবেক্ষক হিসাবে কাজ করবে।

তরুণ ইন্জিনিয়ার রফিকুল ইসলাম জানান, মানুষ ও দেশের জন্য কিছু করার উপযুক্ত স্থান হলো তাদের নিজ গ্রাম। স্বাধীনতার পূর্ববর্তী সময় থেকে এখন অবধি অনেক মানুষ এই সমাজ ও দেশের উন্নয়নের জন্য বিভিন্নভাবে কাজ করে গেছেন। তারা সমাজ ও দেশের জন্য অনেক ত্যাগ শিকার করেছেন। তাদের মধ্যে অন্যতম মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষকসহ অনেক পেশাজীবী মানুষ। যারা শুধু দিয়ে গেছে এই সমাজে কিন্তু আমরা তাদেরকে কতটুকু সম্মানিত করে রেখেছি এই সমাজে? তাদেরকে আজীবন সম্মানিত করে রাখার মত কিছু দিয়ে যাবে “স্বজন”।

গ্রামীন তরুণদের প্রকৃত স্বাধীনতার ইতিহাস জানা ও তাদের দেশপ্রেমের উদ্বুদ্ধ করার জন্য ধারাবাহিক কাজ করে যাবে স্বজন। তরুণদের মধ্যে সত্যবাদিতা, সততা নিরপেক্ষতা ইত্যাদি চর্চা করার জন্য বিভিন্ন কর্মকান্ড হাতে নিবে স্বজন। গ্রামের বিভিন্ন মানুষ প্রতিনিয়ত বিভিন্নভাবে হয়রানি হচ্ছে, প্রতারিত হচ্ছে,সরকারি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তাদের পাশে থাকতে চাই স্বজনের টিম।

চট্রগ্রাম ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্ট নোমান শিবলী জানান, আমাদের সমাজে অনেক তরুন আছে যারা সমাজ ও দেশের উন্নয়নে বিভিন্নভাবে অংশগ্রহন করতে চাই কিন্তু ঐক্যবদ্ধতার কারনে তা সম্ভব হচ্ছে না। আমরা তরুণদের এক কাতারে নিয়ে আসবো ইনশাআল্লাহ। তাদেরকে ভালোবাসা ও স্নেহ দিয়ে আগলে রাখবে স্বজন। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা ও শিক্ষকসহ কিছু ব্যাক্তিদের সংবর্ধিত করার ইচ্ছে আছে। জাতীয় সংগীত ও দেশাত্মবোধক গান নিয়ে সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা হতে পারে। সেইদিন আমরা ৫০ জন তরুন সদস্যকে লাল সবুজের জামা দিয়ে বরণ করে নিবো।

রাজারকুল বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ এর সভাপতি, ছাত্রনেতা সালেহ উল্লাহ আনসারি বলেন ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকলের প্রতি আমাদের ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকবে। ক্রীড়া, সাংস্কৃতিকসহ বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করার ইচ্ছে আছে স্বজনদেরকে নিয়ে। ৯ ওয়ার্ড থেকে নির্দিষ্ট সংখ্যক সদস্য নিয়ে আমরা স্বজন গঠন করবো। আশা করি তরুণরা আমাদের সাথে থাকবে। সাংস্কৃতিবান্ধব আব্দুল্লাহ আল মাসুমসহ সকল আহবায়করা মনে করেন সৎ ও যৌগ্য ব্যক্তিদের নিয়ে স্বজন গঠন করা হয়েছে। আমাদের ঐক্যবদ্ধতা থাকলে সমাজ ও দেশের বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নমুলক কাজে স্বজনের অবদান থাকবে চোখে পড়ার মত।

এদিকে স্বজনের আত্মপ্রকাশে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাজারকুলের বিভিন্ন এলাকার বিভিন্ন পেশাজীবি তরুনরা। অনেকে স্বজনের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন। স্বজন তাদের আগামীর জন্য সকলের কাছে দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.