২৪ ঘন্টাই খবর

মাদারীপুর সদর হাসপাতালে টিকিট ছাড়া দেওয়া হচ্ছে সরকারি ঔষধ।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালে টিকিট ছাড়া দেওয়া হচ্ছে সরকারি ঔষধ

 

রাকিব হাসান, মাদারীপুর।

 

মাদারীপুর সদর হাসপাতালে টিকিট ছাড়া দেওয়া হচ্ছে সরকারি ঔষধ। যেখানে মানুষ টিকিট দিয়ে ঠিকমত ঔষধ পাচ্ছে না। আর সেখানে টাকার বিনিময় হয় ঔষধ। পরিচিত মুখ দেখে দিয়ে চলছে টিকিট ছাড়া ঔষধ।আর সেই কাজটি করে চলছে মাদারীপুর সদর হাসপাতালের ঔষধ বিতরনকারী বিমল চন্দ্র মন্ডল।তিনি তার যত আত্মীয়-স্বজন আছে টিকিট ছাড়াই বিভিন্ন বিভিন্ন রোগের ঔষধ দিয়ে থাকে। হসপিটাল যেন তার রাজ্যের ভিলা। ক্ষমতার জোরে মুখ দেখে দেখেই দিয়ে চলছে টিকিট ছাড়ায় ঔষধ

এদিকে হাসপাতালে চাহিদা মোতাবেক চিকিৎসা সেবা না পেয়ে ভোগান্তিতে পড়েছে রোগীরা। হাসপাতালে পর্যাপ্ত ঔষধ থাকলেও দরিদ্র রোগীরা ঔষধ পাচ্ছে না বলে অভিযোগ তাদের।

 

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে দেখা যায়, বিভিন্ন এলাকা থেকে চিকিৎসা নিতে আসা অনেক রোগীই হাসপাতালে টিকিট নিয়ে দারিয়ে আছে কিন্তু ঔষধ পাচ্ছে না।আর ঔষধ চাইলেই রোগীদের সাথে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এই চলছে ঔষধ বিতরনকারী বিমল চন্দ্র মন্ডল। কেননা প্রতিনিয়ত চলছে রোগিদের সাথে খারাপ আচারণ।গ্রাম থেকে হতদরিদ্র গরিব এবং অসহায় লোক চিকিৎসা নিতে আসে সরকারি হাসপাতালে এমন আচার-আচরণ করে যদি হাসপাতালের কর্মকর্তারা তাহলে কোথায় যাবে রোগি ও তার স্বজনরা।

 

বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে রোগীদের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য দেওয়া হয় সরকারি ওষুধ আর তা বিক্রি হচ্ছে টাকার বিনিময়ে। ওষুধের গায়ে সরকারি সম্পদ বিক্রি করা দণ্ডনীয় অপরাধ লেখা থাকলেও থেমে নেই সরকারি ওষুধ বিক্রি। এতে দেশের বেশিরভাগ দরিদ্র জনগণ যেমন সরকারি ওষুধ পাচ্ছে না।

এব্যাপারে ঔষধ বিতারণকারী বিমল চন্দ্র মন্ডলের কাছে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের উপর ক্ষেপে ওঠেন। তারপরও আরেক সাংবাদিক বিমল চন্দ্র মন্ডলকে জিজ্ঞাসা করেন যেখানে মানুষ টিকিট নিয়ে আপনার কাছে এসে ঠিকমত ঔষধ পাচ্ছে না। শুনতে হয় আপনার অকাট্য ভাষায় গালি এবং খারাপ আচরণ। সেখানে আপনি কিভাবে টিকিট ছাড়া ঔষধ দেন মানুষদের। বিমল চন্দ্র মন্ডল বলেন আপনি কে আপনার কাছে কেন জবাবদিহি করব।

 

এব্যাপারে মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আর এম নজরুল ইসলাম বলেন,টিকিট ছাড়া কোন ঔষধ দেওয়ার নিয়ম নেই।

 

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের সিভিল সার্জন ডা. মোঃ শফিকুল ইসলামকে বলেন, টিকিট ছাড়া কোন ঔষধ দেওয়া যাবে না। যদি কেহ দিয়ে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.