২৪ ঘন্টাই খবর

যুদ্ধবিরতি ‘দুই-একদিনের মধ্যেই’, ধারণা হামাস নেতার

হামাসের রকেটের পাল্টায় ইসরায়েলের বিমান হামলা অব্যাহত থাকলেও দুই পক্ষ ‘দুই-একদিনের ভেতরই’ যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছাবে বলে প্রত্যাশা করছেন ফিলিস্তিনি সশস্ত্র বাহিনীটির জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা।

এর আগে বুধবার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু তার দেশের নাগরিকদের নিরাপত্তা ও শান্তি পুনঃপ্রতিষ্ঠার আগ পর্যন্ত হামাসের ওপর হামলা চালিয়ে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন।

বৃহস্পতিবারও গাজার উত্তরে হামাসের স্থাপনাগুলোতে ইসরায়েল শতাধিক বিমান হামলা চালিয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি।

ইসরায়েলি হামলার পাল্টায় হামাসও ইসরায়েলের বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে রকেট ছুড়েছে।

দখলকৃত পূর্ব জেরুজালেমের একটি এলাকা ও আল-আকসা মসজিদকে কেন্দ্র করে কয়েক সপ্তাহ ধরে উত্তেজনা বৃদ্ধির এক পর্যায়ে হামাস ইসরায়েলের স্থাপনা টার্গেট করে রকেট ছুড়লে ইসরায়েলও পাল্টা গাজায় বিমান হামলা শুরু করে।

দুই পক্ষের সংঘর্ষ এরই মধ্যে দ্বিতীয় সপ্তাহে গড়িয়েছে; এতে শতাধিক নারী-শিশুসহ গাজার অন্তত ২২৭ বাসিন্দা নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে ভূখণ্ডটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ইসরায়েল বলছে, তাদের হামলায় হামাসের অন্তত দেড়শ যোদ্ধা নিহত হয়েছে। যদিও ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠীটি সংঘর্ষে তাদের কি পরিমাণ হতাহত হয়েছে, সে সংক্রান্ত কোনো তথ্য দেয়নি।

সংঘর্ষ শুরুর পর গাজা থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৪ হাজার রকেট ছোড়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েল; এর মধ্যে যে কয়টি আঘাত হেনেছে তাতে দুই শিশুসহ ১২ জনের প্রাণ গেছে।

“আমরা ধারণা যুদ্ধবিরতি নিয়ে এখন যে চেষ্টা চলছে, তা সফলতা অর্জন করবে। আমার ধারণা, এক-দুইদিনের ভেতরেই আমরা যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছাতে পারবো। পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে এ যুদ্ধবিরতি হবে,” লেবাননের আল-মায়াদিন টিভিকে এমনটাই বলেছেন হামাসের রাজনৈতিক কর্মকর্তা মুসা আবু মারজুক।

সংঘাত বন্ধে গত কয়েকদিন ধরেই ইসরায়েল ও হামাসের ওপর আন্তর্জাতিক চাপও বাড়ছিল। বুধবার নেতানিয়াহুর সঙ্গে ফোনালাপে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও যুদ্ধবিরতির জন্য চাপ দিয়েছেন বলে হোয়াইট হাউসের বিবৃতিতে ইঙ্গিত মিলেছে।

মিশরের নিরাপত্তা বাহিনীর এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, মধ্যস্থতাকারীদের সহায়তায় ইসরায়েল ও হামাস দুই পক্ষই যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে একমত হয়েছে; যদিও তাদের মধ্যে আলোচনা এখনও চলছে।

উভয় পক্ষ শুক্রবারের মধ্যেই সমঝোতায় পৌঁছাতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে ব্লুমবার্গ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.