২৪ ঘন্টাই খবর

লালমনিরহাটে সাংবাদিক শহিদুল ইসলামের মৃত্যু ; আমরা শোকাহত

লালমনিরহাট সংবাদদাতা :

লালমনিরহাটে সাংবাদিক শহিদুল ইসলামের মৃত্যু। দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে সাংবাদিক পেশায় জড়িত শহিদুল ইসলাম, তার গ্রামের বাড়ি পাটগ্রাম উপজেলার বাউড়া ইউনিয়নে,  তিনি মৃত্যুকালে ৩ মেয়ে স্ত্রীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে লালমনিরহাটের সাংবাদিক সমাজ গভীরভাবে শোকাহত।  Press Club Patgram – এর সদস্য শহিদুল ইসলাম হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে গতকাল গভীর রাতে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি….. রাজিউন)।

সাংবাদিক শহিদুল ইসলামের মৃত্যুতে “আমি গভীরভাবে শোকাহত”। লালমনিরহাট জেলার কর্মরত সকল সাংবাদিক গভীর শোক প্রকাশ করে তার শোকসন্তোপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছেন। আমি সাংবাদিক শহিদুল ইসলামের সাথে একাধিক বার বুড়িমারী স্থলবন্দরের তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়েছিলাম তিনি সহযোগিতা করে ছিলেন,  যত বার ডেকেছি শহিদুল ভাই কে ততবার কাছে পেয়েছি সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম ভাইকে অনেক পরিশ্রম করে বাউড়া থেকে ছুটে এসেছিলেন পাটগ্রামে, পরামর্শ করে কাজ করে ছিলাম। পাটগ্রাম উপজেলা ও পৌরসভার তথ্য নিয়ে,  শহিদুল ভাই সাহসী ও বুদ্ধিমান ছিলেন,মনটা ছিল পাহাড় সমান, কোন কিছুকেই ভয় পেতেন না তিনি সব সময় সাহস দিয়ে বলতেন লিখে যা আমি তোর সাথে আছি। একজন সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম ভাই চলে গেলেন আমার এ শূন্য কোন দিন পূরণ হবার নয়,সব সময় পাটগ্রাম উপজেলার নিউজ  দিয়ে সহায়তা প্রদান করেছিলেন আমাকে, আমি তার কাছে চিরঞ্চণি। সাংবাদিক শহিদুল ইসলামের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি ও শোক সন্তোপ্ত পরিবারের সদস্যদের শোককে শক্তিতে পরিনত করুক মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন।

মহান আল্লাহ্ তাঁকে জান্নাতবাসী করুন। আমিন।।।এ পৃথিবীতে থাকবো না কেউ, সবাইকে চলে যেতে হবে,  বাউড়ার মানুষের জন্য জনকল্যাণমুখী কাজ করে ছিলেন, অন্যায়ের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ কন্ঠস্বর সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম না ফেরার দেশে চলে গেলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.