২৪ ঘন্টাই খবর

বেপরোয়া ভাবে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে অনুমোদনহীম ট্রলি! ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে গ্রামীণ সড়ক

গোলাম সারোয়ার : কাপাসিয়ার রাস্তা গুলোতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে অনুমোদনহীন ট্রলি। তারা মানছেনা কোন নিয়ম কানুন। অবাদে চলছে অদক্ষ চালক দিয়ে অনুমোদনহীন ট্রলি। স্থানীয় লোকজন বার বার কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দিলেও এসব অনুমোদনহীন ট্রলির বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বার বার ঘোষনা আসলেও মূলত নেয়া হচ্ছেনা কোন ব্যবস্থা। আশরাফ নামের একজন চালক এই প্রতিবেদককে জানায়। প্রশাসনকে মেনেজার করেই আমরা ট্রলি চালাই। মানতি করা আছে। মাসে ২০০০ টাকা দিতে হয়। এসব যানবাহনের কোনো রেজিস্ট্রেশন বা রোড পারমিট নেই। মূলত কৃষি জমি চাষের জন্য ট্রাক্টর আমদানি করা হলেও অসাধু বালু ও ব্রিকফিল্ড ব্যবসায়ীরা ট্রাক্টরের পেছনের অংশ খুলে ফেলে ট্রলি সংযুক্ত করে বালু ও ইট বহনের জন্য ব্যবহার করছে। ট্রলি গুলোতে ঢাকনা ছাড়া দিনদুপুরে বালি পরিবহন করায় আশপাশের বিভিন্ন পরিবহনে থাকা সাধারণ যাত্রী ও পথচারীরা চরম দুর্ভোগের শিকার। বেপরোয়া গতির ট্রলিতে থাকা বালি বাতাসে উড়ে মানুষের চোখে-মুখে যাচ্ছে। অস্বস্থিকর নিয়ন্ত্রণহীন এ ট্রলি বিধি নিষেধ অমান্য করে মহান দাপটের সাথে শহরময় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। ফলে কাপাসিয়া বাসষ্ট্যান্ড এবং বাজারে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। উপজেলার গ্রামীণ সড়ক গুলোতে ট্রাক্টর ট্রলির বেপরোয়া চলাচলে আতংকে আছে পথচারীসহ স্থানীয় বাসিন্দারা। কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রামীণ সড়ক গুলো ক্ষত-বিক্ষত হয়ে খানা-খন্দে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সর্বত্র পরিবেশ দূষণ ঘটছে, রাস্তার পাশের বাড়ী-ঘর ধুলোয় ধুসর ব্যহত হচ্ছে জীবন যাত্রা। বেপরোয়া গতিতে চলার কারনে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার শিকার হয়ে প্রান হারাচ্ছে নিরীহ পথচারী।

Leave A Reply

Your email address will not be published.