২৪ ঘন্টাই খবর

বাংলাদেশের তরুণ চলচিত্রকাররা দেশ বিদেশে সুনাম অর্জন করছে : তথ্যমন্ত্রী

মিরাজ শিকদার : তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশের তরুণ চলচিচত্রকাররা দেশ বিদেশে দেশের জন্য সুনাম অর্জন করছে। চলচিচত্রের নিত্যনতুন প্রযুক্তির এবং চলচিচত্র নতুন নতুন ধারার সাথে অভ্যস্ত হচেছ। তিনি আরও বলেন, তরুণদের বুদ্বিমত্তা ও সৃজনশীলতা বিকাশে আইসিওয়াইএফ এবং ওআইসি এর উদ্যোগে অংশীদার হতে পারায় এবং ঢাকা ওয়াইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস ২০২০-২০২১ এর আয়োজক হতে পারায় তিনি ধন্যবাদ ঞ্জাপন করেন। তিনি আজ সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টায় রাজধানীর আগারগাঁওস্থ বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের প্রজেকশন হলে অনুষ্টিত ঢাকা ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস ২০২০-২০২১ এর শুভ উদ্বোধনী ও প্রেস ব্রিফিং অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। পরে তিনি ঢাকা ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস ২০২০-২০২১ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করেন। তথ্যমন্ত্রনালয়ের মাননীয় সচিব মো: খাজা মিয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যুবও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো: জাহিদ আহসান রাসেল,এমপি, তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি, ইসলামিক কোঅপারেশন ইয়ুথ ফোরাম (আইসিওয়াইএফ) এর প্রেসিডেন্ট মিস্টার তাহা আয়হান, পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের মাননীয় পররাষ্ট্র সচিব (সিনিয়র সেক্রেটারী) মাসুদ বিন মোমেন, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের মাননীয় সচিব মোহাম্মদ আখতার হোসেনসহ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা,অন্যান্য অতিথিবৃন্দ এবং সংশ্লিস্ট ব্যক্তিবর্গরা এসময় উপস্থিত ছিলেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন অনুষ্টানের সভাপতি ও তথ্য সচিব খাজা মিয়া। তথ্য সচির তার বক্তব্যে বলেন, আমাদের যুবকদের সঠিক পথে রাখার জন্য আমাদের তরুণ চলচিচত্র নির্মাতাদের নৈতিক শর্ট ফিল্ম তৈরী করতে উৎসাহ দেওয়া উচিত। যা তাদের আরও দায়িত্বশীল এবং সচেতন করবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া সচিব মোহাম্মদ আখতার হোসেন বলেন, ঢাকা ও ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড ২০২০-২০২১ এর লক্ষ্য তরুণ চলচিচত্র নির্মাতাদের একত্রিত করা। তাদের চলচিচত্র নির্মানের সক্ষতার মাধ্যমে বক্তব্য উন্থাপন এবং তাদের কর্মদক্ষতা বাড়ানোর জন্য উৎসাহিত করা। আইসিওয়াইএফ এর প্রেসিডেন্ট মিস্টার তাহা আয়হান তার ভার্চুয়াল ভিডিও বার্তায় বলেন, আইসিওয়াইএফ সবসময়ই ফিল্মকে গুরুত্ব প্রদান করে এবং এধরনের কার্যক্রম গ্রহনে সচেষ্ট থাকে। তিনি আরও বলেন, আমরা বিশ্বাস করি শর্ট ফিল্ম হচেছ মত প্রকাশের একটি চমৎকার উপায়। এটা আনন্দদায়ক উপায়ে মানুষকে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে অবহিত করে যা শুধু মাত্র কথার দ্বারা সম্ভব নয়। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, বাংলাদেশ তরুণ চলচিচত্র নির্মাতাদের বাক স্বাধীনতা এবং সৃজনশীলতার বিকাশ করার জন্য তাদের তরুণ মন লালনপালনের লক্ষ্যে,আমাদের সরকার সর্বদা সহায়ক। তিনি আরও বলেন, ফলস্বরূপ,বাংলাদেশের চলচিচত্র সাম্প্রতিক সময়ে এই পরিবর্তনটি দৃশ্যমান এবং বাংলাদেশী চলচিচত্রের স্বর্ণযুগ এখন ফিরছে। আমাদের দেশের তরুণ- যুবকরা যেন এই প্রতিযোগিতার অংশ গ্রহন করার আহবান জানিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, এই প্রতিযোগিতা শর্ট ফিল্ম নির্মাণে এবং মত প্রকাশে তরুণদের অনুপ্রাণিত ও উৎসাহিত করবে। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মের ছেলে মেয়েরাই আমাদের আগামী দিনের ভবিষ্যত। তারাই বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে এগিয়ে নিয়ে যাবে। এর কোন বিকল্প নেই। পরে অনুষ্টানের প্রধান অতিথি তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ (এমপি) ঢাকা ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস ২০২০-২০২১ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করেন। এরপর ঢাকা ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস ২০২০-২০২১ এর ওপর নির্মিত একটি প্রমোশনাল ভিডিও প্রচারিত হয়। সবশেষে একটি মনোঞ্জ সাংস্কৃতিক অনুষ্টানের মাধ্যমে অনুষ্টানের সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.