২৪ ঘন্টাই খবর

ভোলার চর বৈরাগ্য বেলায়েত বাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে চায় চরের অসহায় মানুষ

মোঃ ফরিদুল ইসলাম :
ভোলা সদর উপজেলাধীন চর বৈরাগ্য বেলায়েত বেপারীর বিরুদ্ধে দুর্নীতি চাঁদাবাজি এবং বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে চরের সাধারণ মানুষের কাছ থেকে জানা যায় চরের সরকার গরীব অসহায় মানুষের জন্য যেই গুচ্ছগ্রাম দিয়েছে সেই অসহায় মানুষের কাছ থেকে প্রত্যেকটা ঘরের বাবদ বেলায়েতকে টাকা দিয়ে ঘরের ভিতরে ঢুকতে হয়েছে এবং এই বেলায়েত চরের অসহায় মানুষকে কতটা হয়রানি করে আসছে চরে অসহায় সাধারণ মানুষ গরু, মহিষ পালতে হলে দিতে হয় তাকে চাঁদা, চাঁদার টাকা না দিলে শুরু হয়ে যায় সাধারণ মানুষের উপর নির্যাতন। বৈরাগ্য চরের কে এই বেলায়েত বেপারী? এ ব্যাপারে ওই চরের সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের সাথে কথা বললে জানা যায়, আমরা কৃষি কাজ করে খাই এবং গরু মহিষ লালন-পালন করে খায়, সেখানে কয়েকদিন পরপর বেলায়েত বেপারী এসে আমাদের কে বলেন আমাকে ভোলার নেতারা পাঠিয়েছে, তোমাদের কাছে টাকা নেওয়ার জন্য এভাবে আমরা সাধারণ মানুষ হয়রানির শিকার হচ্ছি বেলায়েত বেপারীর হাতে।

এ ব্যাপারে গত ১০/২/২০২১ ইং তারিখে চর বৈরাগ্য গিয়ে জানা যায় আমির হোসেন, সিরাজুল ইসলাম, রফিকসহ একাধিক মানুষ জানান প্রত্যেকটা গুচ্ছগ্রামের ঘর থেকে ২০ হাজার টাকা করে এবং চরের জমিগুলো বেলায়েত বেপারী এককভাবে নিজে ভোগ করে আসছেন এবং তার বিরুদ্ধে আরো বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ ও উঠেছে, এই বেলায়েত বেপারী ভোলার নেতাদের ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে চরের নিরীহ মানুষের উপর থেমে থেমে চালাচ্ছে এই নির্যাতন, তাকে চাঁদার টাকা না দিলে শুরু হয়ে যায় নির্মম নির্যাতন। ভোলার এমন কোন নেতা তাকে দিয়ে সাধারণ মানুষের উপর এত নির্যাতন চালাচ্ছে বেলায়েত।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত বেলায়েত ব্যাপারীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান আমি চর নিয়ন্ত্রণ করি ঠিক আছে আমি আছি আমাদের একটা গ্রুপ নিয়ে। চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়গুলো বললে তিনি আমাদের ক্যামেরার সামনে থেকে এড়িয়ে যান। এই চরের অসহায় মানুষ গুলোর উপ এই ভূমিহীন বেলায়েত বাহিনীর হাত থেকে বাঁচার জন্য প্রশাসনের কাছে হস্তক্ষেপ কামনা করেছে চরের অসহায় দিনমজুর মানুষগুলো।

Leave A Reply

Your email address will not be published.