২৪ ঘন্টাই খবর

ঈদগাঁওতে এক কিশোরীকে গণধর্ষণ -আটক ২

২৮শে জানুয়ারি তিন দুর্বৃত্ত ওই কিশোরীকে কক্সবাজারের একটি সড়ক থেকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়। কয়েক দফা ধর্ষণের পর ৩০শে জানুয়ারি ঈদগাঁও বাজারের একটি মার্কেটের দোতলায় আটকে রাখা হয় কিশোরীকে। সেখানে ধর্ষণের কিশোরীর চিৎকার শুনে টহল পুলিশ চারজনের মধ্যে ১ জনকে গ্রেপ্তার করতে করে। বাকিরা পালিয়ে যায়। পুলিশ বলেছে, ঘটনাস্থল থেকে হাতেনাতে আটক হয় জাফর প্রকাশ খোরশেদ নামে একজন। আরেক দুর্বৃত্ত আহাম্মদ উল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে মামলার পর। তাঁদের কাছ থেকে ঘটনাস্থলসহ কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। দুজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ওই কিশোরীর পরিবারের সদস্যের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত ২৮ জানুয়ারি কক্সবাজারের মহেশখালীর হোয়ানক ধলঘাটপাড়া থেকে সদর উপজেলার ইসলামাবাদ ইউনিয়নের এক বান্ধবীর ছোট ভাইয়ের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে আসছিল ওই কিশোরী। বিকেল চারটার দিকে কিশোরী ধলঘাটপাড়ার একটি লন্ড্রির সামনে পৌঁছালে তিন দুর্বৃত্ত তাকে (কিশোরীকে) মাইক্রোতে তুলে নিয়ে যায়। ২৯ জানুয়ারি রাতে কিশোরীকে উদ্ধারের পরদিন ৩০ জানুয়ারি ঈদগাঁও থানায় আহাম্মদ উল্লাহ (২৬), জালাল প্রকাশ ওরফে টুক্কুইল্যা (১৯), জাফর আলম (৪০) এবং জাফর আলম প্রকাশ খোরশেদ (৫৫) এর নাম উল্লেখ করে মামলা করেন ওই কিশোরির নানা। এর মধ্যে জালাল প্রকাশ ও জাফর আলম পলাতক। ঈদগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল হালিম বলেন, এ ঘটনায় দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে এলাকায় অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.